বৃহস্পতিবার , ২৪ আগস্ট ২০২৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আর্জেন্টিনা
  5. ইউক্রেন
  6. ইরান
  7. খেলাধুলা
  8. চীন
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

মালয়েশিয়ায় বাঙালি ইউসুফ সুলতানের পিএইচডি ডিগ্রি লাভ

প্রতিবেদক
admin
আগস্ট ২৪, ২০২৩ ৩:৩৪ অপরাহ্ণ

মীযান মুহাম্মদ হাসান

স্টাফ রিপোর্টার

বাঙালি জাতি হিসাবে আমরা গর্বিত। বিশ্বের বুকে শিক্ষা সংস্কৃতি বিকাশে বারবার বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করে চলছে, বাঙালি মেধাবী শিক্ষার্থীরা। এবার ব্যতিক্রম ধর্মী শিক্ষা নিয়ে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের সুনাম অর্জন করেছেন দেশের স্বনামধন্য একজন আলিমে দীন মুফতি ইউসুফ সুলতান। আজ তাঁর জীবন নিয়ে আলোচনা করার প্রয়াস রাখব। তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেছেন- মুফতি আবু বকর নাদিল।

ইলমে ওহির আলোয় আলোকিত যে কজন বাঙালি আলিম বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। সফলতার সিঁড়ি বেয়ে দিনদিন আরো উচ্চশিখরে আরোহণ করেছেন। ডক্টর মুফতি ইউসুফ সুলতান তাদের মধ্যে অন্যতম একজন।

শিক্ষা জীবন :

জামিয়া আম্বরশাহ আল ইসলামিয়াতে ছাত্রজীবনের সূচনা। ঐতিহ্যবাহী জামিয়া শারইয়্যাহ মালিবাগ, ঢাকা থেকে কৃতিত্বের সাথে দাওরায়ে হাদীস সম্পন্ন করেন। পরবর্তীতে -ইসলামি আইন বিষয়ক- ইফতা সম্পন্ন করেন একই জামিয়া থেকে।

কর্মজীবনে শিক্ষকতা :

সহকারী মুফতি হিসেবে জামিয়াতুল আসআদ ও জামিয়া শারইয়্যাহ মালিবাগে ইফতা বিভাগে দায়িত্ব পালন করেছেন। ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি গাজীপুরে খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পাওয়াও তার অভিজ্ঞতার ঝুলিতে অন্যতম যুগান্তকারী একটি সংযোজন।

কর্মজীবনের শুরুর দিকে উলামায়েকেরামকে আইটি সেক্টরের সাথে পরিচিত করে অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে দাওয়াহ ছড়িয়ে দিতে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেন। তার প্রচেষ্টার বদৌলতে আলহামদুলিল্লাহ বেশ সাড়া পড়ে। উলামায়ে কেরাম আধুনিক প্রযুক্তির সাথে আরো বেশি পরিচিত হয়ে উঠেন। অনলাইন ভিত্তিক শিক্ষা সংস্কৃতি ও সমাজসেবায় ভূমিকা পালন করেন।

আইটি সেক্টর নিয়ে নিজ স্বপ্নের সফলতার পর তিনি নতুন করে স্বপ্ন বুনতে শুরু করেন ইসলামি অর্থনীতি নিয়ে। উস্তায মাওলানা আবুল ফাতাহ মোহাম্মদ ইয়াহিয়া রহ. অবশ্য তার মাঝে এই স্বপ্নের বীজ বুনে দিয়েছিলেন ছাত্রজীবনেই। কর্মজীবনে এসে সেই স্বপ্নের অঙ্কুরোদগম ঘটে। স্বপ্নের পিছে ছুটতে গিয়ে তিনি পৌঁছে যান সুদূর মালয়েশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক কতৃক প্রতিষ্ঠিত ইসলামি অর্থনীতি বিষয়ে উচ্চতর জ্ঞানার্জনের প্রতিষ্ঠান INCEIF বিশ্ববিদ্যালয়ে। কৃতিত্বের সঙ্গে অর্জন করেন পিএইচডি ডিগ্রি।

মেধার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত :

কওমি মাদরাসার সর্বোচ্চ পরীক্ষায় মুফতি ইউসুফ সুলতান ঈর্ষণীয় ফলাফল করলেও সাধারণ শিক্ষার সমমান সরকার স্বীকৃতি না থাকায় বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের কওমি মাদরাসার ছাত্ররা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সুযোগ থেকে সাধারণত বঞ্চিত হন। কিন্তু মৌখিক ইন্টারভিউতে তার অসামান্য প্রতিভার স্বাক্ষর দেখে বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ কওমি মাদরাসার দাওরায়ে হাদীস ও ইফতার সার্টিফিকেটের ভিত্তিতেই তাকে ইসলামি অর্থনীতিতে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ প্রদান করেন।

এরপর আর তাকে পিছে ফিরে তাকাতে হয় নি। মাস্টার্স শেষ করে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি সম্প্রতি পিএইচডি ডিগ্রি অর্জনের শেষ একাডেমিক ধাপ পেরিয়েছেন। অর্জন করেছেন পিএইচডি ডিগ্রি।

অবশ্য ইসলামি অর্থনীতি বিষয়ে তার সুনাম-সুখ্যাতি ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার বাহিরে অনেক দেশে পৌঁছে গিয়েছে। সাউথ আফ্রিকা, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইন্দোনেশিয়াসহ বেশ কিছু দেশে তিনি আমন্ত্রিত বক্তা ছিলেন। চলতি বছরই বাহরাইনে অনুষ্ঠিত এ্যাওফির বার্ষিক শারিয়াহ সভায় তিনি একটি সেশনের স্পিকার ছিলেন। বাংলাদেশ এ্যাওফি ফেলো ফোরাম কতৃক বাফ এওয়ার্ড ২০২৩ এ ভুষিত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি এ্যাওফির ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য ও মাস্টার ট্রেইনার, বাংলাদেশ সিকিউরিটি এক্সচেঞ্জ কমিশনের শারিয়াহ বোর্ডের সদস্য, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড সাদিক মালয়েশিয়ার শারিয়াহ বোর্ডের সদস্য, আইডিএলসি এসেট ম্যানেজমেন্ট এর শারিয়াহ বোর্ডের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তবে তার সিংহভাগ সময় কাটে তার প্রিয় দুটি প্রতিষ্ঠান আইএফএ কনসালটেন্সি বাংলাদেশ ও আদল এডভাইজরি মালয়েশিয়ার কার্যক্রমের মাঝে। তিনি আইএফএসির সহপ্রতিষ্ঠাতা পরিচালক এবং আদলের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। সুদমুক্ত ইসলামি অর্থনীতি ও লেনদেনে হালাল- হারাম বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে প্রতিষ্ঠান দুটির মাধ্যমে তিনি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আইএফএ কনসালটেন্সি বাংলাদেশে ইসলামি অর্থনীতি ও ফিন্যান্স বিষয়ে ট্রেইনিং, গবেষণা ও শারিয়াহ কনসালটেন্সি সেবার বিষয়ে ইতোমধ্যে পথিকৃৎ হিসেবে মানুষের আস্থা অর্জন করেছেন। পাশাপাশি মাদরাসাশিক্ষার্থীদের ইসলামি অর্থনীতিতে দক্ষ করে তুলতে বন্ধুবর মুফতি আব্দুল্লাহ মাসুম ও মুফতি আতিকুর রহমান খানের সাথে মিলে ইসলামি অর্থনীতি বিষয়ক তাখাসসুস প্রতিষ্ঠান মারকাযু ইকতিসাদিল ইসলামির মুহতামিমের ভূমিকাও পালন করছেন তিনি।

সুদমুক্ত, জুলুমমুক্ত, ইনসাফভিত্তিক ইসলামি অর্থনীতি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ ও এদেশের উলামায়ে কেরাম গোটা বিশ্বের জন্য একদিন পথিকৃৎ হবেন- এই স্বপ্ন নিয়েই মুফতি ইউসুফ সুলতান বর্তমানে কাজ করে যাচ্ছেন।
আমরা তাঁর জীবনের সার্বিক সফলতা কামনা করছি।

সর্বশেষ - Uncategorized

আপনার জন্য নির্বাচিত

সড়ক উন্নয়নের কাজ চলছে৷ উন্নয়নের পাশাপাশি সড়কের গাছ কেটে হরিলুটের রমরমা ফন্দি এটেছিলেন চেয়ারম্যান ও তার বাহিনী

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর ১০ বছরে এক শিশুর ধর্ষনের পর গলা কেটে হত্যা

ফাইতংয়ে মাহা ‘সাংগ্রাইং’ পোয়েঃ ১৩৮৬ উদযাপন উপলক্ষে জলকেলি উৎসব সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

রাণীশংকৈল উপজেলার নন্দিত চেয়ারম্যান শাহারিয়ার আজম মুন্না আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রিড়া উপ-কমিটির সদস্য হলেন

হাজীগঞ্জে জলাবদ্ধ ভাঙা রাস্তা পরিদর্শন করলেন চেয়ারম্যান ফাইজুল ইসলাম

নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথগ্রহণ বুধবার

পার্বত্য এলাকায় সুশিক্ষিত জাতি গঠনে নূরানী শিক্ষার কোন বিকল্প নেই ডাক্তার ইউসুফ আলী

বাঁশ দিয়ে শহীদ মিনার বানিয়ে একুশের শ্রদ্ধা

শেখ হাসিনার পদত্যাগসহ নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবিতে ঝিনাইদহে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচী পালিত হয়েছে

মহেশখালীতে বাজার মনিটরিং ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা