শনিবার , ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আর্জেন্টিনা
  5. ইউক্রেন
  6. ইরান
  7. খেলাধুলা
  8. চীন
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

সৈকতে ৫ পর্যটক ছিনতাইয়ের ঘটনায় ৩ রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

প্রতিবেদক
admin
ডিসেম্বর ৩০, ২০২৩ ৮:২৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্ট সংলগ্ন ‘পর্যটন ছাতা মার্কেটে’ পাঁচ পর্যটককে সংঘবদ্ধ ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত তিন ছিনতাইকারি রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করেছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার অঞ্চলের অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক (এডিআইজি) মো. আপেল মাহমুদ জানান, শুক্রবার গভীর রাতে কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার আসামিরা হল- উখিয়া উপজেলার কুতুপালং ৫ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বি-ব্লকের বাসিন্দা হামিদ হোছেনের ছেলে মো. নুর কামাল (১৯) এবং একই এলাকার মো. বশিরের ছেলে মো. ফারুক (২০) ও নুরুল কবিরের ছেলে মো. নুরুল ইসলাম (১৯)।

ছিনতাইয়ের শিকার পর্যটকরা হল, কুমিল্লা শহরের ২০ নম্বর ওয়ার্ডের ডিসামন এলাকার মোমিন মিয়ার ছেলে আসিফ মিয়া (২২) এবং একই এলাকার তার বন্ধু মো. সায়মন (১৮), মো. সুমন (৩৯), মো. হৃদয় (২০) ও মো. ইয়াছিন (৩৩)।

পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার সকালে কুমিল্লা থেকে বাস যোগে ৫ বন্ধু মিলে কক্সবাজার বেড়াতে পৌঁছান। তারা বাস থেকে নেমে হিমেল হাওয়ার পরশ নিতে লাবণী পয়েন্ট সমুদ্র সৈকতে যান। পথিমধ্যে লাবণী পয়েন্ট সংলগ্ন পর্যটন ছাতা মার্কেট এলাকায় পৌঁছালে ৪/৫ জনের একদল ছিনতাইকারি তাদের গতিরোধ করেন। পরে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে পর্যটকদের কাছ থেকে ছিনতাইকারিরা মানিব্যাগ ও মোবাইলসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ মালামাল ছিনিয়ে যায় ছিনতাইকারিরা।

এডিআইজি আপেল মাহমুদ বলেন, শুক্রবার সকালে ঘটনার পরপরই ভূক্তভোগী পর্যটকরা সৈকতে কর্তব্যরত ট্যুরিস্ট পুলিশ সদস্যদের কাছে বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ করেন। পরে পুলিশ ঘটনাটি অবহিত হওয়ার পরপরই জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করে। ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার সহ নানাভাবে তৎপরতা চালায়। এতে তাদের চিহ্নিত করতে পুলিশ সক্ষম হয়। শুক্রবার গভীর রাতের এক পর্যায়ে পুলিশ শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে নুর কামাল ও মো. নুরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাদের স্বীকারাক্তি মতে পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে মো. ফারুক নামের আরেকজন রোহিঙ্গা ছিনতাইকারিকে গ্রেপ্তার করেছে।”

অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক বলেন, “ গ্রেপ্তাররা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনায় জড়িত থাকার ব্যাপারে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। ঘটনায় চারজন রোহিঙ্গা যুবক ছিল ছিনতাইয়ে জড়িত ছিল। ঘটনায় জড়িত অপর রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে।”

গ্রেপ্তার আসামিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা করে কক্সবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান আপেল মাহমুদ।

সর্বশেষ - Uncategorized

আপনার জন্য নির্বাচিত

প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে ডাক পড়েছে তামিম ইকবালের

মহেশপুর উপজেলা ভবনগর পূর্বপাড়া গ্ৰামে সালাউদ্দিন মিয়াজী নৌকা মার্কায় অনুষ্ঠিত হয়েছে

জীবননগরে পুর্বাশা পরিবহনের ধাক্কায় প্রাণ গেল বাইসাইকেল চালকের

ভিজিডি কার্ড চুরির অপবাদে টমটমের ছাদের উপর বেঁধে নির্যাতন করলো, চৌকিদার রাব্বি। 

রামুতে স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রীর মৃত্যুর অভিযোগ

পেকুয়ায় ১৭ ও ২৬মার্চ পালন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের পরিবার পাবে ৫ লাখ, অঙ্গহানি হলে ৩ লাখ

উখিয়া আশ্রয় শিবিরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে একজন নিহত।

মহেশখালীতে বাজার মনিটরিং ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা

রোহিঙ্গারা এখন মস্ত বড় ডাঃ ক্যাম্পের বাহিরে ফার্মেসী দিয়ে চালাচ্ছে ডাক্তারি