রবিবার , ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আর্জেন্টিনা
  5. ইউক্রেন
  6. ইরান
  7. খেলাধুলা
  8. চীন
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

ঝিনাইদহে সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে মাদক কারবারিদের হামলার শিকার সাংবাদিক

প্রতিবেদক
admin
ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২৪ ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ

মোঃ হাসান আহমেদ :

ঝিনাইদহ শহরের চাকলাপাড়া এলাকায় সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে মাদক কারবারিদের সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন মাহমুদুল কবির নয়ন নামের এক সাংবাদিক।শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে।

মাদক কারবারিদের হামলার শিকার সাংবাদিক মাহমুদুল কবির নয়ন ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক সূর্যদয় পত্রিকার সহ সম্পাদক ও দৈনিক ক্রাইম তালাশ এর প্রকাশক ও সম্পাদক হিসেবে কর্মরত আছেন। গুরুতর আহত সংবাদিক মাহমুদুল কবির নয়ন জানান,শুক্রবার রাতে চাকলাপাড়া এলাকায় মাদক বেচাকেনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায়। সেখানে তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে ।

মাদক ব্যবসায়ী রিপন,সঞ্জয়,সাগরসহ প্রায় ৫-৬ জন দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র দিয়ে আমার উপর হামলা চালায়। পরে আমার আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আহত নয়নের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে।

এ ব্যাপরে ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) শাহীন উদ্দিন জানান, বিষয়টি শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। ভুক্তভোগী সাংবাদিক এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
ঠাকুরগাঁওয়ে বোরো রোপণে ব্যস্ত কৃষকরা, খরচ নিয়ে দুশ্চিন্তা

মোঃ হাবিব ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

খাদ্য শস্যর ভাণ্ডার হিসেবে পরিচিত উত্তরের জেলা ঠাকুরগাঁও। এই জেলার সব উপজেলায় চলতি মৌসুমে বোরো ধানের চারা রোপণ শুরু করেছে কৃষকরা। ফলে ব্যস্ত সময় পার করছে এখানকার কৃষকরা। বর্তমান সময়ে বিদ্যুৎ, সার, কীটনাশক, ডিজেল শ্রমিকসহ সবকিছুর দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় এবার বোরো চাষে অতিরিক্ত খরচের দুশ্চিন্তার ভাঁজ পড়েছে তাদের কপালে। মাঘের হিমেল বাতাস, কনকনে ঠাণ্ডা বাতাস আর ঘন কুয়াশাকে উপেক্ষা করে জমি তৈরি ও বোরো ধানের চারা রোপণ শুরু করেছেন ঠাকুরগাঁও জেলার চাষিরা। বোরো চারা রোপণে পুরুষ শ্রমিকদের পাশাপাশি ব্যস্ত সময় পার করছে নারী শ্রমিকরাও।

আবহাওয়া ভালো থাকলে বাম্পার ফলন ও ভালো দাম পেলে অতিরিক্ত খরচ পুষিয়ে নিতে পারবে বলে আশা করছেন কৃষকরা।

অন্যদিকে উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্য মতে, চলতি মৌসুমে বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৯ হাজার ৯’শত ৫০ হেক্টর জমি। গত বছরের লক্ষ্য মাত্রা ছিল ৯ হাজার ৮ শত ৫০ হেক্টরজমি।শুরু থেকে কৃষি অফিস থেকে সরকারি প্রণোদনাসহ সবধরনের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে উপজেলা কৃষি অফিসের লোকজন।

১৮ ই ফেব্রুয়ারি রবিবার রানীশংকৈল উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ঘুরে দেখা যায়, বোরো ধানের চারা রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। জমিতে বাড়তি সার হিসেবে বিঘা প্রতি ৬-৭ ভ্যান গোবর সার ছিটিয়ে দিচ্ছে। এরপর গভীর নলকূপ থেকে পানি দিয়ে জমি ভিজিয়ে নিয়ে পাওয়ার টিলার দিয়ে কেউবা মেসি (ট্রাক্টর) দিয়ে চাষ করা হচ্ছে। এতে বিঘা প্রতি ২০ কেজি ডেপ, ১২ কেজি পটাস, ৫ কেজি জিপসাম সার মিশিয়ে দ্বিতীয় বার চাষ করে চারা রোপণের জমি তৈরি করে জমিতে চারা রোপণ করছেন। ইতোমধ্যে এ উপজেলায় ১০-১৫ শতাংশ জমিতে চারা রোপণ শেষ হয়েছে।

উপজেলার সন্ধ্যারই গ্রামের গভীর নলকূপ এর মালিক হারুনুর রশিদ জানান, প্রতি বছর আমার এই গভীর নলকূপ দিয়ে এই মাঠে প্রায় ৩০০-৩৫০ বিঘা জমিতে পানি সেচ দিয়ে থাকি। এবারে ও ইতিমধ্যে বিদ্যুৎ এর সংযোগ পেয়েছি এবং জমিতে পানি সেচ দিতে শুরু করেছি। এখন পর্যন্ত এই গভীর নলকূপের আওতায় প্রায় ৬০-৭০ বিঘা জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করেছে কৃষকরা। প্রতি ১০০ শতক (এক একর) জমির জন্য নেওয়া হচ্ছে ৪২০০ (চার হাজার দুই শত টাকা) টাকা। গত বছর নেওয়া হয়েছে ৩ হাজার ৮০০ টাকা। বিদ্যুৎ এর খরচ বেশি তাছাড়া সবকিছুর দাম বেশি কি আর করা।

উপজেলার মহল বাড়ি গ্রামের কৃষক জুয়েল রানা বলেন, আমি ১০ বিঘা জমিতে বোরো চাষ করি। প্রায় জমিতে চারা রোপণ হয়ে গেছে। কয়েক দিনের মধ্যে সম্পূর্ণ জমিতে চারা রোপণ শেষ হবে। তবে গত বছরের তুলনায় এবার খরচের হিসেব বেশি গুনতে হবে। পানি সেচের খরচ, জমি চাষ করা, সার, কীটনাশক ও শ্রমিকসহ সবকিছুর দাম বেশি। তাই দুশ্চিন্তার মধ্যে আছি। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে প্রণোদনা হিসেবে উফশী জাতের ধানের বীজ ও সার পেয়ে খুব উপকার হয়েছে। তবে এবার আবহাওয়া ভালো থাকলে গতবার মতো এবার ও বোরো ধানের ফলন ভালো হবে বলে আশা করছি। গত বছর ফসলের দাম ভালো পেয়েছি। আশা করছি এবারও ভালো দাম পাবো তাহলে খরচ পুষিয়ে নিতে পারবো বলে আশা করছি।

উপজেলার নয়ানপুর গ্রামের কৃষক জাকারিয়া বলেন, আমরা ছোট-খাটো কৃষক মানুষ, আমার বেশি আবাদি জমি নাই, ৫-৬ বিঘা জমি চাষ করি।মানুষ নিয়ে কাম করে নেই না, নিজেই সব করি। বছরে ইরি আর আমন ধান লাগাই তাতে আল্লাহ দিলে ভালোই আবাদ হয়, ভালোই চলে। এবারও লাগাছি আমরা, দেখু কি হয়? এবার তো সারের দাম, পানির দাম, কীটনাশক দাম আগের বছরের তুলনায় বেশি। ভালো ফলন আর ভাল দাম পেলে পুষে যাবে।

উপজেলার ৩ নং হোসেনগাঁও ইউনিয়নের বর্গা চাষি সুবহান বলেন, আমরা গরীব মানুষ নিজের আবাদি জমি নাই বললেই চলে। অন্যর জমি বর্গা নেই ইরি আবাদের জন্য, এক বিঘা জমি (৩৩ শতক) ১০ হাজার টাকা দিয়ে নিতে হয়েছে। বাজারে ইউরিয়া সার আগে ৮৫০-৯০০, পটাশ ৮০০, ডেপ ১০০০ টাকা ছিলো। বর্তমানে ইউরিয়া ১৩৫০, পটাশ ১১৫০, ডেপ ১০৫০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। জমি সেচের বাড়তি খরচ, সারের দাম, শ্রমিকদের মজুরি বেশি, সবকিছু মিলে কি হবে আল্লাহ ভালো জানে! তবে আশা করছি আবহাওয়া ভালো থাকলে এবং ধানের দাম ভালো পেলে খরচ পুষিয়ে নিতে পারবো ইনশাআল্লাহ!

উপজেলার নন্দুয়ার মাঠের জমি রোপণ করা শ্রমিক জামাল মিয়া বলেন, আমরা কয়েকজন মিলে একটা দল তৈরি করেছি। দীর্ঘদিন থেকে বোরো ও আমন ধানের চারা রোপণ করে থাকি। এবার বোরো ধানের চারা রোপণ প্রতি বিঘা (৩৩ শতক) ১৩০০ টাকা করে নিচ্ছি। প্রতিদিন ৭ থেকে ৮ বিঘা জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করতেছি। তবে এখন জমি গাড়ার অত চাপ নাই।

উপজেলার আরেক নারী শ্রমিক মালতী রানী বলেন, আমরা প্রতিদিন হাজিরা হিসেবে বোরো রোপণ করতেছি। প্রতিদিন হাজিরা হিসেবে ৫০০ টাকা পাচ্ছি।

রানীশংকৈল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সইদুল ইসলাম বলেন, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৯ হাজার ৯’শ ৫০ হেক্টর জমি। ইতোমধ্যে চারা রোপণ শুরু হয়েছে। আশা করছি লক্ষ্য মাত্রার বেশি জমিতে বোরো চাষ হবে। ইতিমধ্যে উপজেলায় ১০-১৫ শতাংশ জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করা শেষ হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক উপজেলার প্রান্তিক কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে বোরো হাইব্রিড ধানের বীজ (২৮০০) জন মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। আর উফশি জাতের প্রণোদনা হিসেবে (১৮০০) জনের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ করেছি। বোরো চাষে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের সব ধরনের পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা ও মাঠ কর্মীরা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে আশা করছি এবারও কাঙ্ক্ষিত ফসল ঘরে তুলতে পারবেন কৃষকরা। এবারও ধানের দাম ভালো পেলে অতিরিক্ত খরচ পুষিয়ে নিতে পারবে বলে আশা করছি আমরা।
done

সর্বশেষ - Uncategorized

আপনার জন্য নির্বাচিত

বন্যায় এলাকা প্লাবিত হয়ে লাখো মানুষ পানি বন্দি

উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, আহত ৬

ভোটকেন্দ্র পর্যবেক্ষণে ‘সাংবাদিক’ পরিচয়ে ছাত্রলীগ সভাপতির আবেদন

বোয়ালখালীতে আগুনে পুড়েছে ৩ বসতঘর

পেকুয়ার কহলখালী খালকে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে দিন : পরিবেশ দিবসে বক্তারা

বাড়ির পাশে আম গাছে ঝুলে আছে বৃদ্ধার লাশ, কেউ জানেনা মৃত্যুর কারণ 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন– পেকুয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জাফর আলমের পথসভায় নরী ও পুরুষের ঢল

সিদ্বিরগঞ্জে আলী হোসেন কে খুন করে লাশ গুম করার হুমকী

বৃষ্টি না হওয়ায় পানির অভাবে পাট পচাতে পারছেন না ঠাকুরগায়ের কৃষকেরা

টেকনাফে অস্ত্র তৈরীর কারখানায় র‍্যাবের অভিযান চলছে