মঙ্গলবার , ২৬ মার্চ ২০২৪ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আর্জেন্টিনা
  5. ইউক্রেন
  6. ইরান
  7. খেলাধুলা
  8. চীন
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

থানার চারপাশে বিভিন্ন ফুল বাগানে পাশাপাশি সূর্যমুখী চাষে সফলতা পেয়েছেন ওসি মো:শামীম শেখ

প্রতিবেদক
admin
মার্চ ২৬, ২০২৪ ১০:০০ পূর্বাহ্ণ

মো.ইসমাইলুল করিম, নিজস্ব প্রতিবেদক :
সূর্যমুখী চাষে আশার আলো দেখছেন পার্বত্য জেলা বান্দরবানের লামা থানার ওসি। জেলায় দিন দিন বাড়ছে এর চাহিদা। কৃষি বিভাগ মনে করছে, সূর্যমুখী চাষে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির পাশাপাশি পূরণ হবে তেলের চাহিদা। বিগত কয়েক বছর ধরে সরকারিভাবে পরীক্ষামূলক শুরু হলেও এবার অনেক লামা থানা ওসি মোহাম্মদ শামীম শেখ নিজ উদ্যোগে সূর্যমুখী চাষ করেছেন। এমনই একজন বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী সদস্য শামীম শেখ থানার চারপাশে বিভিন্ন ফুল বাগান করে।সাফল্য পাওয়ায় এবার নিজ উদ্যোগে প্রায় ২০ শতাংশ জমিতে সূর্যমুখী ফুলের বীজ দিয়ে চাষ করেছেন সূর্যমুখীর।এর সৌন্দর্য উপভোগ করতে বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসছেন শত শত মানুষ। তবে এই সূর্যমুখী চাষ উদ্যোগ নেওয়াতে ওসি লামায় প্রশংসায় অতুলনীয়।

সূর্যমুখী চাষে সফলতা পেয়ে থানার ওসি শামীম শেখ বলেন, আমি বিভিন্ন জায়গায় ফুলের বাগানে দেখে থানার চারপাশে ফুলের বাগান করেছি।এখানে অনেক ধরনের ফুল গাছের চারা রোপণ করেছি। অন্য জায়গায় সূর্যমুখীর আবাদ বেশি হয় চাহিদাও অনেক। তখন আমি চিন্তা করি থানার চারপাশে কিছু করবো। অনেক জন্য থেকে পরার্মশে এই বছর পরীক্ষামূলক ভাবে এক ২০ শতাংশ জমিতে সূর্যমুখীর চাষ করি।ফলনও অনেক ভালো হয়েছে আশা করছি বিক্রি করতে চাইলে অনেকটাকা লাভ থাকবে।তিনি আরও বলেন, সূর্যমুখী সরিষার থেকে তিন-চারগুণ বেশি আবাদ হয় খরচ প্রায় সমান হয়। সূর্যমূখী চাষ করতে চার- সাড়ে চার মাস সময় লাগে ও দুইটা সেচ দিতে হয়। চাহিদা ও লাভ অনেক বেশি। সূর্যমুখী চাষে একদিকে তেলের চাহিদা পূরণ হবে। অন্যদিকে সৌন্দর্য বাড়ছে। আমার বাগানে বিভিন্ন এলাকা থেকে এক নজর দেখতে আসছে দর্শনার্থীরা, এসে তারা ছবি তুলছে। আগামী বার আরও বড় পরিসরে করার চিন্তা ভাবনা আছে। যারা বেকার তারা ঘরে বসে না থেকে সূর্যমুখীর চাষ করলে অনেক লাভবান হবেন। তেলের চাহিদাও পূরণ হবে। উপজেলা কৃষি অফিস আমাকে সব ধরণের সহযোগিতা করছে।

ফাইতং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ ওমর ফারুক উপজেলা কাজ এসে থানায় চারপাশে ফুলবাগান দেখে বলেন, এই বছর ওসি সাহেব এখানে ঘুরতে এসে সূর্যমুখী চাষ অনেক ভালো লাগে। আাগমীতে আমিও আমার বাড়ির উঠানে সূর্যমুখী চাষ করবো। এক দিকে সৌন্দর্য বাড়ছে আরেক দিকে তেলের চাষিদা পূরণ হবে। বিভিন্ন সময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছবি দেখেছি। তাই আজ দেখতে আসলাম। সূর্যমুখী ফুলের দিকে শুধু তাকিয়ে থাকতেই ইচ্ছে করে।

লামা সাংবাদিক ফোরাম সভাপতি ইউছুপ মজুমদার
বলেন, ওসি শামীম শেখ সূর্যমুখীর চাষ করেছে দেখে অনেক ভালো লেগেছে। সূর্যমুখী সরিষার থেকে তিনগুণ-চারগুণ বেশি লাভ হয়। এটার চাহিদা ও দাম অনেক বেশি। আমারও ইচ্ছে আছে আগামী বছর নিজ উদ্যোগে সূর্যমুখীর চাষ করার। সরকারি ভাবে যদি চাষীদেরকে উদ্ধুদ্ধ করে তহালে সূর্যমুখীর আবাদ আরও বাড়বে এবং ভোজ্যতেলের স্বয়ং সম্পূর্ণ অর্জনের লক্ষে সরিষার আবাদ যেভাবে বৃদ্ধি করা হয়েছে, সেভাবে সূর্যমূখীর আবাদও বৃদ্ধি করা হচ্ছে। ওসি সাহেব সরিষার পাশাপাশি সূর্যমুখীর বড় ধরনের প্রজেক্ট হাতে নিতে পারেন। সূর্যমুখী বীজ থেকে একদিকে তেলের চাহিদা পূরণ হবে। অন্যদিকে সৌন্দর্য বাড়ছে, দর্শকরা সূর্যমুখীর ছবি তুলার জন্য ক্ষেতগুলোতে ভীড় করবে।

থানার অন্য এক অফিসার বলেন, আমাদের ফুল চাষীদেরকে সূর্যমুখীর আবাদ বৃদ্ধির জন্য যেমন উৎসাহ দরকার। তেমনি কৃষিদের প্রযুক্তিগত সহযোগিতা আশা করছি প্রতিনিয়তই আমাদের পাশে থেকে। সূর্যমুখীর আবাদ কৌশল সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট ভাবে ধারণা চাই। রোগ-বালাই থেকে কিভাবে রক্ষা করা যায় সেজন্য চাষীদের পরামর্শ দেওয়া চাই। প্রণোদনার পাশাপাশি চাষীদের পাশে থেকে উৎসাহ আশা করছি। এজন্য বিভিন্ন জমি সহ থানা ও সরকারি অফিসে দিনদিন সূর্যমুখীর আবাদ বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে মনে করছি।

সর্বশেষ - Uncategorized

আপনার জন্য নির্বাচিত

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠান

বেলকুচি উপজেলা বড়ধুল ইউনিয়ন ক্ষিদ্রচাপড়ী গ্রামের যমুনা নদীর তীব্র ভাঙন শুরু হয়েছে

চকরিয়া পেকুয়া আসনে নৌকা মনোনয়ন চাইবেন সালাহ উদ্দিন আহমেদ সিআইপি

সোহাগপুর এসকে পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান

ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলায় আন্তর্জাতিক মহান মে দিবস পালিত

নির্বাচনে ভোট বর্জনের আহবান জানিয়ে মিরসরাইয়ের বিভিন্ন স্থানে লিফলেট বিতরন

বারইয়ারহাট মডার্ন হিফয মাদরাসায় ছবক ও হাফেজ ছাত্রদের পাগড়ি প্রদান

উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১, আহত ৬

একাধিক চাকরি দেবে পান্না গ্রুপ, ৪৫ বছরেও আবেদন

কক্সবাজারের ক্রাইম জোন গর্জনিয়ায় জোড়া খুনের ঘটনায় থমথমে অবস্হা বিরাজ করছে।ঘটনার ৭২ ঘন্টায় রোহিঙ্গা ডাকাত আবছার কিংবা সহযোগীদের গ্রেপ্তার নেই