রবিবার , ৫ মে ২০২৪ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আর্জেন্টিনা
  5. ইউক্রেন
  6. ইরান
  7. খেলাধুলা
  8. চীন
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. দেশজুড়ে
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

৬ষ্ঠতম নির্বাচনকে ঘিরে আনারস মার্কায় নির্বাচনে অংশ গ্রহনে বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল

প্রতিবেদক
admin
মে ৫, ২০২৪ ১০:৪০ পূর্বাহ্ণ

মো.ইসমাইলুল করিম নিজস্ব প্রতিবেদক:

পার্বত্য জেলা বান্দরবানের লামা উপজেলা জনপ্রতিনিধি হিসেবে মো.মোস্তফা জামাল গত ৫ বছর ব্যপকভাবে উন্নয়ন করে এমন জানান ফাইতংয়ের জনগন। আশার ঝড় বয়ে বেড়াচ্ছে বাংলাদেশ আ.লীগ দলের দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে। চেয়ারম্যান হিসেবে বিজয় করতে এমন হতাশায় ব্যস্ততম দিন পার করছে সাধারণ জনগন। হতাশাকে জয় করার লক্ষ্যে আলোর দিশা হিসাবে সাধারণ জনগন লামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে লামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহন করতে দ্বাবী জানালেন সৎ, নির্ভীক মানুষ বীরমুক্তিযোদ্ধা সন্তান মো. মোস্তফা জামাল’কে সাধারণ জনগন। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ দলের অঙ্গসহযোগী সংগঠনের উপজেলা সহ-সভাপতি বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ লামা শাখা। সাধারন মানুষ নির্বাচন করার জন্য বার বার ডাক দিচ্ছে। সাধারণ জনগনের কথায় উদবুদ্ধ হয়ে,থাকতে না পেরে আবারও তিনি মনোনয়ন যুদ্ধে অংশ গ্রহন করেন বলে জানান। বাল্যজীবন থেকে যৌবন পর্যন্ত তিনি রাজনীতির সাথে অন্তরঙ্গভাবে জড়িত ছিলেন। মাঝে কিছুদিন ফাঁকা ছিলো রাজনৈতিক জীবন। কিন্তু থেমে থাকেনি তার রাজনীতি, তার রাজনীতি জনপ্রতিনিধি কর্মজীবন শেষ করে রক্তে মিশে থাকা আওয়ামীলীগ দলের সাথে রাজনৈতিক জীবন পাড় করছেন সাংবাদিকদের সামনে এমন আশা ব্যক্ত করেন আনারস প্রতীক পাওয়া মোস্তফা জামাল। স্থানীয় নেতাকর্মীরাও নতুন মুখের দিকে প্রাণপণ ভাবে তাকিয়ে আছে। ফাইতং ইউনিয়ন ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ড উঠান বৈঠক ও পথ সভা করেন শনিবার ০৪ মে বিকালবেলা উপস্থিত ছিলেন, লামা উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মোস্তফা জামাল, উপজেলা আওয়ামিলীগ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক কামাল উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান মো. ওমর ফারুক, আওয়ামিলীগ সহসভাপতি শহিদুল্লাহ মিন্টু, সহসভাপতি মাহামুদুর রহমান শুক্কুর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ এইচ এম আহসান উল্লাহ, সাবেক ছাত্রনেতা মোহাম্মদ শাহীন, ফাইতং ইউনিয়ন আওয়ামিলীগ ও দলীয় অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী সহ প্রমূখ।

উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তফা জামাল বলেন, আমি ছাত্ররাজনীতি করেছি পূর্বে ও উপজেলা বিভিন্ন ইউনিয়ন ব্যাপকভাবে কাজ করা হয়।আবারও উপজেলা বিভিন্ন এলাকায় কিছু করার চেষ্টায় আছি। আমি নিজ অর্থায়নে সংগঠনের দায়িত্ব পালন থেকে সকল প্রকার সামাজিক কাজকর্ম করি এই আঙ্গিকে চিন্তাধারা পরিবর্তন করে নতুন চিন্তায় অংশ নিয়েছি। নিজের চেষ্টায় সার্বিকভাবে কাজ করি আগামীতেও করবো। কিন্তু এরই সাথে সরকারের সহযোগিতা যুক্ত করতে পারলে আমার লামার মানুষ অনেক কিছু আশা করতে পারবে এই চিন্তাধারাকে কেন্দ্র করে আমার জনগনের কথাতেই আমি মনোনয়ন জমা দিয়েছিলাম আশা করছি জনগনের সহযোগিতা থাকলে আমি বিজয়ী হবো ইনশাআল্লাহ। তবে আসুন সহযোগিতা নয়, কাজের ব্যবস্থা করতে হবে মানুষের জন্য। তিনি আরও জানান, জনগনের কল্যানার্থে লামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহন করে বাংলাদেশ আ.লীগ দলকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে জানাই এই লামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আমাকে আনারস প্রতীকে নির্বাচিত করে তাহলে নির্বাচিত হয়ে জনগনের সকল ইচ্ছা সর্বসাধারণ জনগনের কথাতেই সফল করার চেষ্টা করবো৷ প্রার্থী থেকে থাকে তাহলে তাকেই যদি ভোট দিয়ে বিজয়ী করে অবশ্যই তাকে আমরা সমর্থন করবো এমন কথা ব্যক্ত করেন চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল। তবে মাঠ, ঘাট, গ্রাম, গঞ্জের দিকে একটু নজর দিলেই দেখা যায় মোস্তফা জামাল কথা। উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত নম্রতা নিয়েই তার মানুষের সাথে চলাফেরা বলেই মনে করে লামা উপজেলার সাধারন মানুষ।

সর্বশেষ - Uncategorized